ভ্যাকসিন তৈরিতে ইতালির বড় অগ্রগতি, দাবি বিজ্ঞানীদের

 বিদেশ : করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির প্রতিযোগিতায় প্রথম চারে আগেই নাম লিখিয়েছে আমেরিকা, চীন, ব্রিটেন ও জার্মানি। এ বার নতুন করে এসেছে ইতালি। তবে তাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বা মানবদেহের ওপরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু হতে আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। ইতালির গবেষকদের দাবি, তারা এমন একটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছেন, যা কি-না মানব কোষে নোভেল করোনা ভাইরাসের কার্যকলাপ নিষ্ক্রিয় করে দিতে সক্ষম হবে।

এ ছাড়া অন্যান্য ভ্যাকসিনের চেয়ে এটাতে বেশি আগ্রগতি এসেছে বলে দাবি তাদের।
রোমে সংক্রামক ব্যাধির জন্য থাকা বিশেষ হাসপাতাল স্পাল্লানজানিতে ইঁদুরের ওপরে ভ্যাকসিনের অ্যানিমেল ট্রায়াল সফল হয়েছে বলে দাবি করেছেন তারা। ভ্যাকসিন প্রয়োগে দেখা গেছে, ইঁদুরের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। মানুষের শরীরেও প্রতিষেধকটি একইভাবে কাজে আসবে বলে আশা বিজ্ঞানীদের।

করোনা রুখতে সম্ভাব্য চিকিৎসার তালিকায় রয়েছে আমেরিকান ওষুধ ‘রেমডেসিভিয়ার’ ও ব্রিটেনের ‘চ্যাডক্স-১’ ভ্যাকসিন। ইতালির গবেষক দলটির সঙ্গে যুক্ত ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থার প্রধান নির্বাহী (সিইও) লুইজি আউরিজিক্কিও’র ভাষায়, ‘এ সংক্রান্ত সম্ভাব্য প্রতিষেধক আরও রয়েছে। কিন্তু আমাদের মতো এতটা অগ্রগতি মনে হয় না আর কেউ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ভাইরাসটিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়ার কাজটা আমরাই প্রথম করে দেখালাম। আশা করছি, মানুষের দেহেও এটি একইভাবে কাজ করবে। আউরিজিক্কিও জানান, এই গরমের পরেই ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হবে। সে জন্য জোর কদমে প্রস্তুতি চালাচ্ছেন তারা। ইতালির নিজস্ব গবেষক দল ও প্রযুক্তির সাহায্যে ভ্যাকসিন আগ্রগতির চেষ্টা করা হচ্ছে।

এর ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালও ইতালিতেই দেশের মানুষের ওপরে করা হবে। এই ভ্যাকসিনের গবেষণা সফলভাবে সম্পন্ন হলে গোটা বিশ্বকেই তা ব্যবহার করার জন্য দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *