মহাকাশে প্রথম হাঁটলেন নভোচারী ওয়াং ইয়াপিং

বিদেশ : মহাকাশে প্রথমবারের মত হেঁটেছেন কোনো চীনা নারী নভোচারী। বিশ্ব রেকর্ড গড়া ওই নারী নভোচারীর নাম ওয়াং ইয়াপিং। রোববার ‘শেনঝৌ ১৩’ মহাকাশযান থেকে নেমে তিনি প্রথমবার অরবিটাল স্টেশনে হাঁটেন। তখন তার সঙ্গে এক সহকর্মীও ছিলেন। এর আগে কোনো নারী নভোচারী মহাকাশের চীনা অরবিটাল স্টেশনে হাঁটেননি। ৩১ বছর বয়সী ওয়াং ইয়াপিংর সঙ্গে ছিলেন তার সহকর্মী ঝাই ঝিগাং (৫৫)। তার সহকর্মীই নেতৃত্ব দেন তাকে। মহাকাশে নেমে পৃথিবীতে সঙ্গে যোগাযোগ করেন তারা। জানান, দুজনেই সুস্থ ও নিরাপদ আছেন। চীনের তিয়েনগং মহাকাশ স্টেশনের বাইরে ওয়াং ও ঝাই ছয় ঘণ্টা সময় কাটান। এ সময় তারা শূন্যে ভেসে ছিলেন। মহাকাশে প্রথম নামার সময় তাদের ক্যামেরার দিকে হাত নাড়াতে দেখা যায়। এরপর তারা দুজন মিলে বেশ কিছু যন্ত্রাংশ স্থাপন করেন। মহাকাশ গবেষণায় বেশ অগ্রগতি হয়েছে চীনের। এর মধ্যে তিয়েনগং মহাকাশ স্টেশন স্থাপনকে একটি বড় সাফল্য হিসেবে ধরা হচ্ছে। এখান থেকেই মঙ্গলগ্রহে সফলভাবে মহাকাশযান পাঠানো হয়েছে, অভিযান চালানো হয়েছে চাঁদেও। সব ঠিকঠাক থাকলে কমপক্ষে ১০ বছর তিয়েনগং মহাকাশ স্টেশনটি কর্মক্ষম থাকবে বলে আশা চীনের। সেখানে এই মুহূর্তে অবস্থান করছেন ওয়াং ইয়াপিং ও ঝাই ঝিগ্যাং ছাড়াও ইয়ে গুয়াংফু নামের আরেক নভোচারী। কয়েক সপ্তাহ আগেই তারা চীনের গোবি মরুভূমির জিউকুয়ান উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে তিয়ানগংয়ের উদ্দেশে পাড়ি জমান। এর আগেও একদল নভোচারী মহাকাশ স্টেশনটিতে অবস্থান করেছেন। ওয়াংয়ের দলের বাকি দুই সদস্যের মধ্যে ঝাই ঝিগ্যাং অবশ্য আগেই মহাকাশে হেঁটেছেন। চীনের প্রথম নভোচারী হিসেবে ২০০৮ সালে মহাশূন্যে পা রাখেন যুদ্ধবিমানের সাবেক এই পাইলট। তিন সদস্যের দলটি আগামী ছয় মাস তিয়েনগংয়ে অবস্থান করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!