মাস্ক খুলে ট্রাম্প বললেন: করোনাকে ভয়ের কিছু নেই

বিদেশ : নাটকীয়ভাবে হাসপাতাল থেকে হোয়াইট হাউসে ফিরে এসেছেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মাত্র ৩ রাত তিনি হাসপাতালে ছিলেন। বিবিসি বলছে, হেলিকপ্টারে করে ফিরে আরও নাটকীয় ভঙ্গিতে হোয়াইট হাউসের বেলকনিতে দাঁড়ান ট্রাম্প।

এরপর মুখের মাস্ক খুলে পোজ দেন ক্যামেরার সামনে। তিনি এমন জায়গায় মাস্ক খুলে দাঁড়ান, যেখানে আশপাশে অনেকে ভাইরাস পজিটিভ কর্মকর্তা আছেন। সোমবার হাসপাতাল ছাড়ার আগে টুইট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান: আমি সত্যি ভালো অনুভব করছি। ২০ বছর আগে আমি যেমন ছিলাম, তার চেয়ে ভালো অনুভব করছি। হয়তো আমি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাসম্পন্ন। যদিও আমি জানি না। তবে আপনার জীবনকে অবহেলা করবেন না। সচেতন থাকুন।

ট্রাম্প আরও বলেন, করোনাভাইরাসকে ভয় করবেন না। এটিকে আপনার জীবনে প্রভাব ফেলতে দেবেন না। আমাদের বিশ্বের সবথেকে ভালো মেডিসিন আছে, ভ্যাকসিন আসছে শিগগিরই। এর আগে একবার ব্যক্তিগত গাড়িতে চড়ে হাসপাতাল থেকে তিনি নাটকীয়ভাবে বেরিয়ে আসেন এবং জনতার মাঝে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন, যা নিয়ে ওয়াল্টার রিড হাসপাতালের একজন চিকিৎসকও উদ্বেগ জানিয়েছেন। কোভিড-১৯ এ সংক্রমিত হলে রোগীদের কমপক্ষে ১০ দিনের জন্য হলেও আইসোলেশনে থাকার নিয়ম মানা হয়। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প তার কিছুই মানেননি।

বরং তিন দিনের মধ্যে তিনি হোয়াইট হাউসে ফিরে এসেছেন। চলতি সপ্তাহের শুরুতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইট করে নিশ্চিত করেন যে, তিনি এবং ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন এবং তারা দুজন এখন কোয়ারেন্টিনে আছেন।

এর ২৪ ঘণ্টা পর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে স্বাভাবিক ভঙ্গিতেই হাসপাতালে হেঁটে উঠতে দেখা যায়। করোনাভাইরাসের শীর্ষ আক্রান্ত দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৭৬ লাখ ৭৯ হাজার ৬৪৪ জন মানুষ এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার ৩২ জন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *