মৃত ব্যক্তির চুল-নখ কাটার বিধান

ধর্মপাতা: মৃত ব্যক্তির চুল-নখ ইত্যাদি যদি বড় থাকে, তাহলে কি কেটে দেওয়া যাবে? উত্তর: মৃত ব্যক্তির চুল, নখ ইত্যাদি বড় থাকলেও তা কেটে দেওয়া শরিয়তে মাকরূহ (অপছন্দনীয়)। এজন্য মৃতের পরিবারের উচিত, মৃত্যুর আগেই মুমূর্ষু রোগীর ওইসব পরিষ্কার করে দেওয়া।
ইবনে সিরিন (রহ.) থেকে বলেন, ‘মৃতব্যক্তির চুল ও নখ কাঁটা যাবে না।’ (মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক, হাদিস নং : ৬২২৮)
মুহাম্মাদ (রহ.) বলেন, মৃত ব্যক্তির বগলের নিচের পশম ও নখ কাটাকে মাকরূহ মনে করা হয়। তিনি বলতেন, অসুস্থ ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজনের উচিত, এই কাজটি তার অসুস্থাবস্থায় করে দেওয়া। (মুসান্নাফে ইবনে আবি শাইবাহ ৭/১৩৯, হাদিস নং : ১১০৫৩)
হানাফি মাজহাবের বিখ্যাত ফাতাওয়া গ্রন্থ ‘আল-ফাতাওয়া-আল হিন্দিয়া’ (১/১৫৮) রয়েছে, মৃতের চুল ও দাঁড়ি আচঁড়ে দেবে না, তার নখ ও চুলও কাটবে না। হিদায়া কিতাবে মাসআলাটি এভাবেই রয়েছে। মৃতের গোঁফ কাটবে না, তার বগলের নিচে পশম উঠাবে না। তার নাভীর নিচের লোম কেটে দেবে না। বরং এসব জিনিসসহ তাকে দাফন করবে। (আরও দেখুন: আদ্দুরল মুখতার ২/১৯৮, শামী ২/১৯৮, ফাতহুল কাদির ২/৭৫, তাবয়ীনুল হাকায়েক ১/৫৬৭, শরহুল মুনিয়্যাহ ৬৭৯, আল বাহরুর রায়েক ২/১৭৩)
উত্তর দিয়েছেন: মুফতি মুহাম্মাদ শোয়াইব, সহকারী মুফতি, জামিয়া রহমানিয়া সওতুল হেরা, টঙ্গী, গাজীপুর। সম্পাদক, আরবি ম্যাগাজিন মাসিক ‘আলহেরা’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *