রাজশাহী বিভাগে আরও ১ হাজার ৮৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত

এফএনএস (রাজশাহী) : রাজশাহী বিভাগে ফের বেড়েছে করোনা শনাক্তের হার। প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে করোনায় সংক্রমণের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী বিভাগে নতুনভাবে আরও ১ হাজার ৮৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এটি করোনা ভাইরাস শনাক্তে রাজশাহী বিভাগের নতুন রেকর্ড। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮৮২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। ফলে এ হিসেবে বলা যায়, রাজশাহীতে ঘরে ঘরে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। তবে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়লেও এখন পর্যন্ত হাসপাতালে সেভাবে চাপ বাড়েনি। এর কারণ হিসেবে এখানকার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, করোনায় সংক্রমিত অধিকাংশরাই নিজ বাড়িতে অবস্থান করে চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে নিচ্ছেন। যাদের মধ্যে রয়েছে করোনার নমুনা পরীক্ষাহীন ব্যক্তির সংখ্যাও। তবে তারা শরীরের লক্ষণ বুঝতে পেরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ভেবে এভাবে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আর সংক্রমিতদের মধ্যে যাদের অবস্থার অবনতি হচ্ছে তারাই কেবল হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।
জানা গেছে, রাজশাহীর দুইটি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা অনুপাতে জেলায় টানা তিনদিন ধরে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার ৫০ এর উপরে। মঙ্গলবার এ জেলায় ৫৮ দশমিক ৬০ শতাংশ নমুনায় ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। তবে বিভাগের রিপোর্ট তা ৬০ এর উপরে। র‌্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষাসহ জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৬৭ দশমিক ৩৯ শতাংশ। এ তথ্য বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টার। এর আগের ২৪ ঘন্টায় মঙ্গলবার নমুনা পরীক্ষা অনুপাতে রাজশাহী জেলায় করোনা সংক্রমণের হার ছিল ৫৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ। তার আগের দিন সোমবার (২৪ জানুয়ারি) ছিল ৬০ দশমিক ৪৯ শতাংশ।
এ তথ্য নিশ্চিত করে বুধবার (২৬ জানুয়ারি) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মঙ্গলবার রাজশাহীর দুইটি পিসিআর ল্যাবে ৫৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ৩৪৪ ব্যক্তির দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার হিসেবে শনাক্তের হার ৫৮ দশমিক ৬০ শতাংশ। আর বুধবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে রোগী ভর্তি হয়েছেন ৮ জন। একই সময় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৮ জন। হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ১০৪ শয্যার বিপরীতে মোট ৪৯ জন রোগী ভর্তি ছিলেন। এদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ৩৪ জনের। আর অন্যরা করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন। আর ৪৯ ভর্তি রোগীর মধ্যে রাজশাহীর ২৯ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৬, নওগাঁর ৩, নাটোরের ২, পাবনার ৩, কুষ্টিয়ার ৩, সিরাজগঞ্জের ১, ঝিনাইদহের ১ এবং মেহেরপুরের ১ জন রয়েছেন।
এদিকে বুধবার দুপুরে প্রেরিত রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ক্রমবর্ধমান পরিসংখ্যান বলছে, রাজশাহী বিভাগে করোনা পরিস্থিতি আরও অবনতির দিকেই যাচ্ছে। গড় তুলনায় এখন পর্যন্ত মৃত্যুর হার কম থাকলেও প্রতিদিনিই লাফিয়ে বাড়ছে করোনা শনাক্তের হার। পরীক্ষা অনুপাতে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে। পরিস্থিতি বলছে, গত বছরের মে, জুন ও জুলাইয়ের মত আবারও করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে এই বিভাগে।
পরিসংখ্যানে আরও দেখা গেছে, রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৮৮ জনের। একই সময় মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। আর গত ২৪ ঘন্টায় রাজশাহী জেলায় ৪৩৬ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৪৪, নওগাঁয় ৬১, নাটোরে ৪৩, জয়পুরহাটে ৩৪, বগুড়ায় ১৭৭, সিরাজগঞ্জে ৮৬ এবং পাবনা জেলায় ২০৭ জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। তবে একই সময়ে এ বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১০৭ জন।
রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়, এদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘন্টায় রাজশাহী জেলায় র‌্যাপিড এন্টিজেনসহ ৬৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৪৩৬ জনের। শনাক্তের হার ৬৭ দশমিক ৩৯ শতাংশ।
নাজমা আক্তার বলেন, আরটিপিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হয় ৫৮৭ জনের। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ৪০৪ জনের। শনাক্তের হার ৬৮ দশমিক ৮২ শতাংশ। আর ৬০ জনের র‌্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে করোনা পজেটিভ এসেছে ৩২ জনের। এতে শনাক্তের হার ৫৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ।
এদিকে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, বর্তমানে রাজশাহীতে ঘরে ঘরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী রয়েছে। তবে তারা বাড়িতে থেকেই স্বাভাবিক নিয়মে জ¦র শর্দি কাশির চিকিৎসা নিচ্ছেন। এতে ভালও হয়ে যাচ্ছেন। এজন্য হাসপাতালে করোনা রোগীর চাপ কম। তবে অবস্থার অবনতি হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের অধিকাংশই টিকা না নেয়া।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *