লিচুর রাজধানী পাবনায় আবারও ঝড়ে লিচুর ব্যাপক ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তান্ডবের পর দ্বিতীয় দফায় আবারও লিচুর রাজধানী পাবনায় লিচুর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। টাকার অঙ্কে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তাৎক্ষণিক জানাতে না পারলেও সব মিলিয় জেলায় প্রায় তিনশত কোটি টাকার লিচুর ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা কৃষি সংশ্লিষ্টদের।

জেলার ঈশ্বরদী, সদর, আটঘরিয়া, চাটমোহরসহ নয় উপজেলার অধিকাংশ লিচু বাগানের অপরিপক্ক লিচু গাছের ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তান্ডবের পর দ্বিতীয় দফায় আবারও গত রাতের ঝড়ে ডালপালা ভেঙ্গে ও লিচু ঝরে গেছে। চাষীরা জানান, সপ্তাহখানেকের মধ্যেই বাজারে উঠতো বোম্বাই, চায়না, মোজাফফরীসহ উন্নত জাতের এসব লিচু। ফুল আসার পর লাভের আশায় অগ্রিম বিনিয়োগ করে এসব বাগান কিনেছিলেন ব্যাপারীরা। আকস্মিক ঝড়ে পুঁজি হারিয়ে পথে বসার উপক্রম তাদের।

লিচু চাষি ইকরাম আলী বলেন, তিন লাখ টাকা দিয়ে লিচু বাগানটি ক্রয় করেছি। লিচু বাগানে ভালো ছিলো। এর আগের ঝড়ে ডালপালা ভেঙ্গে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আবারও গত রাতের ঝড়ে আবারও ক্ষতি হয়েছে। এই লিচুর গায়ে দাগ পড়ে লিচু বিক্রি হচ্ছে না। আমাদেরও লোকশান, কৃষকেরও লোকশান।

একাধিক লিচু চালিা বলেন, আমরা লিচু বিক্রি করতে পারছি না। ঝড় হয়ে লিচুর কালো দাগ হয়ে গেছে। ঝড়ে লিচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমরা এখন কি করব।

চাষিরা আরো বলেন, ঈদের আগের ঝড়ে লিচু বাগানের ডালপালা ভেঙ্গে লিচুর অবস্থা খুব খারাপ। আবারও ঝড়ে লিচুর এমন অবস্থা এই লিচু বাজারজাত করাই যাচ্ছে না। লিচু গায়ে কালো দাগ পড়ে গেছে। এই লিচু বাজারে ৮০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। এই লিচুর গতবার আড়াইশ থেকে তিনশ টাকায় বিক্রি হয়েছে ।

পাবনা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালনক আজাহার আলী বলেন, ক্ষতিগ্রস্থ চাষীদের তালিকা তৈরীর কাজ চলছে। তিনি আরো জানান, লিচু সমৃদ্ধ পাবনায় এ বছর ৪ হাজার ৬০০ হেক্টর জমিতে লিচুর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪৬ হাজার মেট্রিক টন। যার বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে সাতশ কোটি টাকা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!