সংবাদ প্রকাশ করায় জুয়ারুদের হাতে লাঞ্ছিত সাংবাদিক

পিপ (পাবনা) : মাদক ও জুয়ার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা “দৈনিক মানবজমিন” “স্টুন্ডেজার্ণালবিডি”র উপজেলা প্রতিনিধি ও স্থানীয় “দৈনিক স্বতঃকণ্ঠের” উপজেলা প্রতিনিধি শাহিবুল ইসলাম পিপুলকে লাঞ্ছিত করেছে জুয়ারী ও মাদক চক্রের সদস্যরা। সোমবার রাত সোয়া দশটার দিকে উপজেলার পাথরঘাটার গ্রামের বিশিপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পরে ঐ সাংবাদিক ভাঙ্গুড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সে উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনাসমদস্য গোলজার হোসেনের ছেলে। অভিযুক্তদের মধ্যে একাধিক জন ছাত্রলীগের সাথে জড়িত। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে।

লিখিত অভিযোগ ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা যায়, উপজেলোর পাথরঘাটা গ্রামের বাসিন্দারা গত মাসের ৭ তারিখে গ্রামের একটি নির্জন বাগানে রাতের বেলায় জুয়া খেলার সময় ধাওয়া করে সাতজন জুয়ারুকে আটক করে। পরে গ্রামবাসী আটককৃতদের পুলিশে দিতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য জিয়াউল হক জুয়েল আটককৃতদের অভিভাবকদের সাথে কথা বলে তাদের নিজ জিম্মায় নেয় এবং আর জুয়া খেলবে না মর্মে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেয়।

এ বিষয়ে সেই সময় বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপরে ২০ এপ্রিল জুয়া ও মাদক চক্রের ঐ সদস্যরাই পুনরায় গ্রামের মাঠের মধ্যে থাকা ইরিগেশনের সেচপাম্পের ঘরে জুয়া খেলার সময় পাথরঘাটা ও পার-ভাঙ্গুড়া গ্রামের লোকজন চেয়ারম্যান ও গ্রাম পুলিশের সহায়তায় তাদের ঘিরে ফেলে আটক করে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য ৪ জুয়ারুকে আট হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেয়।

এ ঘটনায়ও দৈনিক মানজমিনে, অনলাইন পোর্টাল “স্টুন্ডেজার্ণালবিডি”তে “ভাঙ্গুড়ায় করোনাকালে জুয়ার থাবা” শিরোনাম সহ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর থেকেই ওই জুয়ারু চক্রের সদস্যরা শাহিবুল ইসলাম পিপুলকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল।

একপর্যায়ে সোমবার রাতে বাড়ি ফেরার সময় পিপুলকে পূর্বে জনগণের কাছে ধৃত হওয়া পাথরঘাটা গ্রামের জুয়ারু চক্রের সদস্য মাহমুদ আলীর ছেলে সৈকত (২০), আবু সাঈদের ছেলে মিলটন আহমেদ (২৫), মনসুর আলীর ছেলে মামুন (২২), শহীদ আলীর ছেলে শরীফ (২০), হামেদ আলীর ছেলে মাহফুজ (২৫), কোরবান আলীর ছেলে হাসান (২৫) পাশ্ববর্তী গ্রাম কাশীপুরের আজাদ আলীর ছেলে ডলার (২৫) সহ ১০/১২ জন পথ আটকে মারধর করে। রাতেই সাংবাদিক পিপুল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযুক্তদের মধ্যে সৈকত ও মিল্টন ছাত্রলীগ করে এবং ভাঙ্গুড়ার এক প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির ঘনিষ্ঠজন। মূলত তার ছত্রছায়াতেইে এরা এলাকায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, জুয়ারু ও মাদক সেবীদের ধরতে থানা পুলিশ খুবই তৎপর রয়েছে। এঅবস্থায় বিপথগামী যুবকগুলো জুয়া খেলে সামাজিক অবক্ষয় ঘটাচ্ছে।

অপরদিকে নিউজ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে মারধর করেছে। এটা অনেক বড় ধরনের অপরাধ। তাই অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। এছাড়া দ্রুত বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *