সদরদপ্তরের খোঁজে চীনের বাইরে টিকটক

আইটি: চীনের বাইরে অন্য দেশে নতুন সদরদপ্তর বানানোর পরিকল্পনা করছে ক্ষুদ্র ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটক। চীনা ভাবমূর্তি থেকে বের হতেই প্রতিষ্ঠানটি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে এক সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

চীনা প্রতিষ্ঠানের তৈরি অ্যাপ হওয়ায় সম্প্রতি মার্কিন আইনপ্রণেতাদের গভীর সমালোচনার মুখে পড়েছে টিকটক এবং নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স।

বিজনেস ইনসাইডারের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, অ্যাপটির সেন্সরশিপ এবং এটি জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি কিনা তা নিশ্চিত করতে তদন্তের আহ্বানও করেছেন মার্কিন সিনেটর। আগের সপ্তাহেই সরকারের ইস্যু করা ফোনে টিকটক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মার্কিন নৌ বাহিনী।

ইতোমধ্যেই বেশ কিছু প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনা ভিত্তি থেকে নিজেদের আলাদা করতে অনেক কৌশল নিচ্ছে টিকটক। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সূত্র বলেন, নতুন প্রধান কার্যালয়ের জন্য সিঙ্গাপুর, লন্ডন এবং ডাবলিনকে সম্ভাব্য জায়গা হিসেবে বিবেচনা করছে বাইটড্যান্স। আরেক সূত্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, দেশের বাইরে একটি প্রধান কার্যালয়ের পরিকল্পনা কয়েক মাস ধরেই করা হচ্ছে। বর্তমানে কোনো প্রধান কার্যালয় নেই টিকটকের।

প্রতিষ্ঠানের মূল কার্যালয় এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে। আর টিকটকের প্রধান নির্বাহীও কাজ করনে শাংহাইয়ের বাইরে থেকে। প্রতিষ্ঠানটি ঠিক কোথায় সদরদপ্তর বানানোর পরিকল্পনা করছে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এমন প্রশ্নের সরাসরি কোনো জবাব দেননি টিকটক মুখপাত্র।

ওই মুখপাত্র বলেন, “আমরা এ বিষয়ে নিশ্চিত যে বিশ্ব বাজারে প্রতিযোগিতার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো স্থানীয় দলকে কাজে লাগানো। টিকটক যে দেশগুলোতে চলছে সে দেশগুলোতে স্থীরভাবে নিজেদের ব্যবস্থাপনা দল তৈরি করেছে।”

নতুন প্রধান কার্যালয়ের বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে তাৎক্ষণিকভাবে বিজনেস ইনসাইডারকেও কিছু জানায়নি টিকটক।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *