সন্ধান মিলেছে পৃথিবীর প্রবীণতম নারীর

বিদেশ : বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়স্ক নারীর সন্ধান মিলেছে। জাপানের ‘কেন তানাকা’ দেশটির একটি নার্সিং হোমে ১১৯তম জন্মদিনের কেক কেটেছেন। তিনি আরো একটি বছর জীবিত থেকে ১২০তম জন্মদিন পালন করতে চান। এর মধ্য দিয়ে নতুন এক রেকর্ড গড়বেন কেন তানাকা। গত সোমবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদন জানায়, তানাকার জন্ম ১৯০৩ সালে। সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী ১১৯ বছর বয়সী জাপানের কেন তানাকা পৃথিবীর প্রবীণতম নারী। জাপানের পাঁচটি রাজকীয় শাসন দেখেছেন প্রবীণ এই নারী। তানাকার লক্ষ্য এখন ১২০তম জন্মদিন পালন করা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত শনিবার তানাকার নাতির মেয়ে জুনকো তানাকা টুইটার পোস্টে ১১৯ বছরে পা রাখার সংবাদ জানান। সেই হিসেবে ‘কেন তানাকা’ পৃথিবীর প্রবীণতম জীবিত নারী। জুনকো তানাকা টুইটারে লেখেন, ‘বিশাল প্রাপ্তি। কেন তানাকা ১১৯ বছরে পৌঁছেছেন। আশা করি, তিনি আনন্দের সঙ্গে জীবন কাটাবেন।’ জুনকো তানাকার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, কোকা-কোলা কোম্পানি কেন তানাকার জন্য উপহার হিসেবে ‘জন্মদিনের বোতল’ পাঠিয়েছে। বোতলের গায়ে তানাকার নাম ও বয়স উল্লেখ করা হয়েছে। এদিকে জুনকো টুইটে আরো বলেন, ‘এমন উপহার দেখে মনে হতে পারে তানাকা এখনো কোকা-কোলা পান করেন।’ তানাকা ১৯২২ সালে ১৯ বছর বয়সে হাইদিও তানাকাকে বিয়ে করেন। তাদের চার সন্তান রয়েছে। এবং পঞ্চম একটি সন্তান দত্তক নিয়েছেন। তার স্বামী ছিলেন একজন চালের দোকানদার। তানাকা সেই দোকানে কাজ করেছিলেন ১০৩ বছর বয়স পর্যন্ত। তিনি জাপানের ফুকুওকা এলাকায় বসবাস করেন। ২০১৯ সালে তাকে সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ হিসাবে স্বীকৃতি দেয় গিনেস বুক অব রেকর্ডস।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *