সরোজ খানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করলেন বলিউড তারকারা

বিনোদন: ‘দোলা রে দোলা’, ‘এক দো তিন’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। শুক্রবার ৭১ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বলিউডের কিংবদন্তি এই কোরিওগ্রাফার। সরোজ খানের মৃত্যুতে শোকাহত তার ভক্ত ও সহকর্মীরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন অনেক তারকা অভিনয়শিল্পী। বলিউডের ‘বিগ বি’খ্যাত অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে লিখেছেন, ‘প্রার্থনা, দুই হাত একত্রিত, মন অশান্ত।’এই কোরিওগ্রাফারের মৃত্যু ইন্ডাস্ট্রির অনেক বড় ক্ষতি উল্লেখ করে অক্ষয় কুমার টুইট করেছেন, ‘ঘুম থেকে উঠেই দুঃখের খবর পেলাম, কিংবদন্তি কোরিওগ্রাফার সরোজ খান আর নেই।

তিনি নাচকে এতটাই সহজ করেছিলেন মনে হয় সবাই নাচতে পারেন, ইন্ডাস্ট্রির অনেক বড় ক্ষতি। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।’ ‘তেজাব’ সিনেমার মাধুরী দীক্ষিতের বিখ্যাত ‘এক দো তিন’ গানের কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে মাধুরী দীক্ষিত টুইটারে লিখেছেন, ‘আমার বন্ধু ও গুরু সরোজ খানের মৃত্যুতে বিধ্বস্ত। নাচে আমার পূর্ণ দক্ষতা পেতে সাহায্য করায় তার কাছে কৃতজ্ঞ। পৃথিবী একজন দক্ষ মানুষকে হারালো। আমি আপনাকে মনে রাখব। আপনার পরিবারের প্রতি সমবেদনা।’

নির্মাতা কোরিওগ্রাফার ফারাহ খান টুইট করেছেন, ‘শান্তিতে ঘুমান সরোজজি। আপনি অনেকের অনুপ্রেরণা, এর মধ্যে আমিও আছি। গানগুলোর জন্য ধন্যবাদ।’ অভিনেতা অভিষেক বচ্চনের প্রথম গানের কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘আমার প্রথম গান কোরিওগ্রাফি করেছেন সরোজজি। এরপর আরো অনেক। আপনি আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছেন। আপনাকে মনে পড়বে সরোজজি। চিরনিদ্রায় শায়িত থাকুন।’ অভিনেত্রী তাপসী পান্নু টুইটারে লিখেছেন, ‘অন্তত আপনার প্রতিষ্ঠানে নাচের সুযোগ পেয়েছি। সেই স্মৃতিগুলোই শক্ত করে ধরে রাখব। আকাশের আরো একটি তারা ঝরে গেলো। আপনার প্রতিটি গান প্রত্যেক মেয়েকে সবসময় আপনাকে মনে করিয়ে দেবে।’

অভিনেতা সোনু সুদ লিখেছেন, ‘সরোজজি আপনাকে মনে পড়বে।’ ‘বাহুবলি’ সিনেমাখ্যাত অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়া টুইটারে লিখেছেন, ‘ঘুম থেকে উঠে সরোজ খানের মতো কিংবদন্তি কোরিওগ্রাফারের মৃত্যুর দুঃসংবাদ পেলাম। খুব ছোটবেলা থেকেই তার আইকনিক নাচ আমাকে অনুপ্রাণিত করে। চিরনিদ্রায় শায়িত থাকুন সরোজজি, সত্যিই আপনার বিকল্প নেই।’

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *