সাঁথিয়ায় পেঁয়াজের বীজতলায় দুর্বৃত্তদের বিষ প্রয়োগ ; ২০ লাখ টাকার ক্ষতি

পিপ (পাবনা) : পেঁয়াজ খ্যাত পাবনার সাঁথিয়া করমজা ইউনিয়নের আফড়া গ্রামের পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কৃষক চেনিলালের মঙ্গলগ্রাম মৌজায় প্রায় ১ একর জমির বীজতলার আগাছা নাশক বিষ দিয়ে পিয়াজের দানা নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে প্রায় ৩০ বিঘা জমির দানা মরে নষ্ট হয়ে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়।

অভিযোগে জানা যায়, আফড়া গ্রামের চিনিলাল,কাজী লাল,সানোয়ার ও আনোয়ার চার ভাই মিলে মঙ্গলগ্রাম মৌজায় তাদের ৮০ শতক জমিতে জমিতে বীজ তলা তৈরি করেন। সেখানে ভালভাবেই পিয়াজের দানা গজেছিল। ওই দানা প্রায় ৩০ বিঘা জমিতে পিয়াজ লাগানোর ৪/৫ দিন পর পিয়াজের চারা মরে যাওয়ায় তারা বুঝতে পারে এই বীজ তলায় কেউ আগাছা নাশক বিষ প্রয়োগ করেছিল। তাদের ধারনা রাতের আধারে দুর্বৃত্তরা পূর্ব শত্রুতার জেরে বীজতলায় আগাছা নাশক বিষ প্রয়োগ করে গেছে যা তারা বুঝতে পারে নাই। অভিযোগে আরও বলেন, ওই দানা নিয়ে যখন জমিতে বপন করতে যায় তখন বুঝা যায়নি। দানা বপনের কয়েকদিন পরও যখন দেখা গেল দানা জমিতে লাগে নাই তখন বিষয়টি বুঝতে পারে।

সরেজমিন গেল সোমবার আফড়া গ্রামের মাঠে গিয়ে দেখা যায়, বীজতলায় কিছু দানা আছে তবে তা মরে গেছে। পরে মাঠের মধ্যে গিয়ে পেঁয়াজের দানা বপন করা জমি থেকে কিছু মরা দানা তুলে দেখা যায় পিয়াজের দানার গোড়ার অংশ পচা ও আগা মরা।

আফড়া গ্রামের কৃষক মালু,ইজাই,আবুসহবেশ কয়েকজন জানায় চেনিলালের নিকট থেকে পেঁয়াজের দানা ক্রয় করে জমিতে বপন করেছিল। আমাদের সব দানা পঁচে মরে গেছে। তারা বলেন, এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে পেঁয়াজের আবাদ করেছিলাম আমাদের সব শেষ হয়ে গেল। কিভাবে যে এই ঋণ শোধ করবো তা আল্লাহই জানে। আবার ওই জমিতে যে আবার পেঁয়াজ লাগাবো দানা কেনার টাকাও নেই। এ ঘটনায় চেনিলাল বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
সাঁথিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

বীজতলার মালিক চেনিলাল কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, বড় স্বপ্ন নিয়ে পেঁয়াজের বীজতলা করেছিলাম। দানা সুন্দরও হয়েছিল। ভাল দানা দেখে অনেকেই আমার থেকে কিনে নিয়েছিল। তারাও ক্ষতিগ্রস্ত হল আমরাও শেষ হয়ে গেলাম । আমার এত বড় সর্বনাশ কে করলো। আল্লাহ তুমি এর বিচার করো।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার গোস্বামী বলেন, আমার সুপাভাইজার খবর পেয়ে ওই জমি থেকে কিছু দানা নিয়ে এসেছে। দানা দেখে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটা আগাছা নাশক কোন বিষ হয়তো দেয়া হয়েছে। তবে ল্যাবে নিয়ে পরীক্ষা করলে সঠিক তথ্য জানা যাবে। রাতে আধারে কৃষকের এরকম ক্ষতি করা দুঃখজনক।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *