সিরাজগঞ্জ-১ ও ঢাকা-১৮ আসনে ভোট ১২ নভেম্বর

এফএনএস: ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ নভেম্বর। গতকাল সোমবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে তফসিল ঘোষণা করে এসব কথা বলেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সচিব মো. আলমগীর। এর আগে বেলা ১১টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বে কমিশনের ৭১তম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ভোটের দিন নির্ধারণ করা হয়। সভা শেষে সাংবাদিকদের ইসি সচিব জানান, মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন ১৩ অক্টোবর, মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ১৫ অক্টোবর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২২ অক্টোবর এবং ভোটগ্রহণ হবে ১২ নভেম্বর।

এই দুই আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট হবে বলেও জানান ইসি সচিব। মো. আলমগীর বলেন, ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসন মৃত্যুজনিত কারণে শূন্য হয়েছিল। সংবিধানে বলা আছে, প্রথম ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার কথা বলা আছে। করোনার কারণে এই সময়ে নির্বাচন করার চেষ্টা করেনি ইসি। এরপর নির্বাচন কমিশন আরও ৯০ দিন সময় বাড়িয়ে দিয়েছিল। এই ৯০ দিন অতিক্রম করার সুযোগ সংবিধানে দেয়া হয়নি।

অতএব নির্বাচন কমিশন আজ সিদ্ধান্ত দিয়েছে। নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যান্য বিষয় তুলে ধরে ইসি সচিব বলেন, করোনাকালে ভোটের যে স্বাস্থ্যবিধি মানার নিয়মকানুন রয়েছে, সেগুলো মানা হবে। আইনশৃঙ্খলার যে বিষয়গুলো আছে, সবই মানা হবে দুই উপনির্বাচনে। কিছু ব্যতিক্রম আছে, সেটা হলো ঢাকায় আগে নির্বাচন করলে যানচলাচলের ক্ষেত্রে সব বন্ধ রাখা হতো। এবার তা করা হবে না। এ বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত দেবে যে, কোন কোন যানবাহন চলবে, কোন কোন যানবাহন চলবে না। এ বিষয়গুলো পরিপত্র আকারে আমরা দেব। একইসঙ্গে অফিস খোলা থাকবে। নির্বাচনের জন্য কোনো অফিস বন্ধ থাকবে না। তবে ভোটার যদি অন্য এলাকায় চাকরি করেন, তাহলে তাকে কর্তৃপক্ষ ভোট দেয়ার জন্য সময় দেবেন। ভোট দিয়ে আবার অফিসে চলে আসতে হবে।

ঢাকা-৫ উপনির্বাচনে পাঁচ প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ: এদিকে ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বী পাঁচ প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে (ইটিআই) প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক তুলে দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। প্রতীকপ্রাপ্তদের মাঝে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলামকে নৌকা, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সালাহ্ উদ্দিন আহমেদকে ধানের শীষ প্রতীক পান। এছাড়া জাতীয় পার্টির সমর্থিত প্রার্থী মীর আবদুস সবুরকে লাঙ্গল, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি সমর্থিত প্রার্থী মো. আরিফুর রহমান সুমন মাস্টারকে আম এবং বাংলাদেশ কংগ্রেস সমর্থিত প্রার্থী মো. আনছার রহমান শিকদারকে ডাব প্রতীক প্রদান করা হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা হাবিবুর রহমান মোল্লা গত ৬ মে মারা যান। এরপর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১৭ অক্টোবর ইভিএমে এ আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। একইসঙ্গে নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচনও এদিন অনুষ্ঠিত হবে। দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৪৮, ৪৯ ও ৫০ নম্বর ওয়ার্ড এবং ডেমরা, দনিয়া, মাতুয়াইল ও সারুলিয়া ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ঢাকা-৫ আসন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *