সুইসাইড করতে বিষ পান করেছিল সালমান শাহ

বিনোদন: অমর নায়ক সালমান শাহ। নব্বই দশকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে ধূমকেতুর মতো তার আবির্ভাব। মাত্র চার বছরে ২৭টি সিনেমায় অভিনয় করে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। বৃহস্পতি তুঙ্গে থাকা অবস্থাতেই সালমান শাহ ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রহস্যজনকভাবে মৃত্যুবরণ করেন। কিন্তু গলায় ফাঁস দিয়ে মৃত্যুর আগেও বিষ পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন বলে জানান সালমান শাহর স্ত্রী সামিরা।

সামিরাকে প্রথম দেখেই ভালো লাগে সালমান শাহর। পরিচয়ের প্রথম কথাতেই সালমান শাহ সবার সামনে সামিরাকে বলেছিলেন, ‘তুমি কিন্তু আমার বউ!’ পরের দিন সকালে চিঠি নিয়ে হাজির হন এই নায়ক। এভাবেই তাদের প্রেমের সূচনা। এর পর দুজনে ঘুরতে গিয়ে পুলিশের কাছে আটক হওয়া সহ বিভিন্ন ঘটনা ঘটে। এক পর্যায় বিয়ের প্রস্তাব দেন সালমান শাহ। এতেই বিপত্তি বাধে বলে জানান সামিরা। এ প্রসঙ্গে সামিরা বলেনÑতখন আমার ও লেভেল পরীক্ষা চলছিল। এ সময় ইমন (সালমান শাহ) আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়।

আমি রাজি হইনি। ইমনকে বলেছিলাম, আমার পরীক্ষাটা শেষ হোক। এখন আমার পরিবার বিয়ে দিতে রাজি হবে না। কিন্তু ইমন আমাকে পালিয়ে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়। তখন আমি তাকে স্পষ্ট বলেছিলাম, আমি পালিয়ে বিয়ে করতে পারব না। এই কথা কেন বললাম? সেই রাগে সালমান শাহ সুইসাইড করতে বিষ পান করেছিল। সেই পরিস্থিতির বর্ণনা করে সামিরা বলেন, বিষয়টি বুঝতে পেরে ইমনের ছোট ভাই বিল্টুকে ল্যান্ড ফোনে কল দিয়ে দ্রুত আসতে বলি।

পরে বিল্টু ও তার বন্ধুরা মিলে ইমনকে হলি ফ্যামিলিতে নিয়ে গিয়েছিলাম। হাসপাতালে এখনো সে রেকর্ড আছে। এর আগেও ইমন সুইসাইড করতে চেয়েছিল! আসলে আমার পরিবার চাইত না ইমনের সঙ্গে আমার বিয়ে হোক। তারপরও ১৯৯২ সালে ২০ ডিসেম্বর ধুমধাম করেই ইমনকে বরণ করে নিয়েছিল আমার বাবা-মা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *