সুজানগরে গ্রাম পুলিশের মৃত্যু নিয়ে গুঞ্জন

সুজানগর, পাবনা : পাবনার সুজানগরে আবদুর রাজ্জাক (৬৫) নামে ইউনিয়ন পরিষদের এক অবসরপ্রাপ্ত গ্রাম পুলিশের মৃত্যু নিয়ে জনমনে গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে। কেউ বলছে রাজ্জাক হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছে। আবার কেউবা বলছে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে মারপিট দিয়ে হত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার নারায়নপুর গ্রামে। মৃত আবদুর রাজ্জাক সুজানগর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোসলেম উদ্দিনের ছেলে এবং উপজেলার ভায়না ইউনিয়ন পরিষদের অবসরপ্রাপ্ত গ্রাম পুলিশ।

সুজানগর থানা পুলিশ জানায়, মৃত আবদুর রাজ্জাক সোমবার রাত ১০টার দিকে তার আমেরিকা প্রবাসী ছোট ভাই মুরাদ হোসেনের নারায়নপুরস্থ ছাগলের খামার, ফলের বাগান এবং পুকুর পাহাড়া দেওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। সকালে ওই গ্রামের শহীদুর রহমান নামে জনৈক ব্যক্তি রাজ্জাকের লাশ ওই খামার ঘরের পাশে পড়ে থাকতে দেখে তার বাড়িতে খবর দেয়।

এ সময় রাজ্জাকের ছেলে কামরুল ইসলাম বিষয়টি থানা পুলিশকে জানায়। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে ওই কামরুল বাদী হয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা করেছে।

পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য লাশ পাবনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। ওই কামরুল জানান, তার বাবার চোখ এবং মুখের নিচে বেশ ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। সেহেতু মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নিয়ে তিনি সন্দিহান। তবে তার বাবার কোন শত্রু ছিল না বলেও সে জানায়।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সুজানগর সার্কেল) ফরহাদ হোসেন বলেন লাশের মুখ ও চোখের নিচে ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। হয়তো হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যাওয়ার পর কোন মাংসাসি প্রাণি মাংস খাওয়ার কারণে ওই ক্ষত হতে পারে। আবার মারা যাওয়ার পিছনে অন্য কারণও থাকতে পারে। তবে ময়না তদন্ত প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছেনা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *