সৌদি আরবে একদিনে ৮১ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর

বিদেশ : সৌদি আরবে গণ মৃত্যুদ- কার্যকর করার রীতি প্রচলিত রয়েছে। গত শনিবার দেশটিতে একদিনে সন্ত্রাসবাদ থেকে বিপথগামীতাসহ নানা জঘন্য অপরাধের অভিযোগে ৮১ জনের মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়েছে। যা সংখ্যায় গত এক বছরের তুলনায় বেশি। এসব অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠী, আল কায়েদা, হুতি বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সদস্য ছিল। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ বলছে, মোট ১৩ জন বিচারক এই ব্যক্তিদের বিচার করেছেন এবং তারা তিন ধাপের বিচার প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে গেছেন। এসপিএর তথ্য অনুযায়ী, মৃত্যুদ- কার্যকরের তালিকায় শীর্ষ পাঁচ দেশের চারটিই মধ্যপ্রাচ্যে। শীর্ষ দেশের তালিকায় রয়েছে সৌদি আরব, চীন, ইরান, মিশর এবং ইরাক। এ ছাড়া গত শনিবার মৃত্যুদ- পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ইয়েমেনের সাতজন ও সিরিয়ার একজন নাগরিক রয়েছেন। মৃত্যুদ-প্রাপ্তদের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক স্থাপনা ও নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের টার্গেট করা, হত্যা, অপহরণ, ধর্ষণ এবং চোরাচালানের মাধ্যমে সৌদি আরবে অস্ত্র প্রবেশ এরকম নানা ধরনের অভিযোগ ছিল। এসপিএর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সন্ত্রাসবাদ থেকে বিপথগামীতা, এরকম নানা জঘন্য অপরাধের অভিযোগ ছিল দন্ডপ্রাপ্তদের বিরুদ্ধে। মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো বলছে, সৌদি আরবে প্রায়শই অনেকে ন্যায়সঙ্গত বিচার প্রক্রিয়ার অধিকার পান না। তবে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের তথ্যমতে, বিশ্বে যে সব দেশে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদ- কার্যকর হয়ে থাকে সৌদি আরব তাদের মধ্যে অন্যতম। সৌদি আরবে জনসম্মুখে মৃত্যুদ- কার্যকর করার রীতি প্রচলিত রয়েছে। গত বছর সৌদি আরবে ৬৯ ব্যক্তির মৃত্যুদ- কার্যকর করেছে। ২০১৬ সালে এক দিনে ৪৭ জনের মৃত্যুদ- কার্যকর করেছিল সৌদি আরব। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের হিসাব অনুযায়ী, ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়েছে ইরানে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!