হংকংকে নিয়ন্ত্রণ করার ‘বিতর্কিত’ আইন পাস চীনে

বিদেশ : নিজেদের আধা স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ে ‘দেশদ্রোহিতা বা রাষ্ট্রদ্রোহিতা’ ঠেকানোর জন্য ‘ন্যাশনাল সিকিউরিটি ল’ আইনটি পাস করেই ছাড়ল চীন। মে মাসের শেষ দিকে চীনের জাতীয় আইনসভা ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসে আইনটি অনুমোদন পায়। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসে রোববার থেকে শুরু হওয়া তিন দিনের বৈঠকের শেষ সময়ে এসে সর্বসম্মতিক্রমে আইনটি পাস করে স্থায়ী কমিটি।

মাত্র ১৫ মিনিটে ১৬২ জন সদস্য আইনের পক্ষে মত দেন। খসড়া এখনো প্রকাশ করা হয়নি। তবে আইনটি পাস হওয়ার আগে হংকংয়ের হাতেগোনা কয়েক জন প্রতিনিধি খসড়া দেখার সুযোগ পেয়েছেন। হংকংয়ের নেতা ক্যারি ল্যাম মঙ্গলবারের সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। আইনটি হংকংয়ের গেজেটভুক্ত হলেই কার্যকর হওয়ার কথা। ধারণা করা হচ্ছে ১ জুলাই থেকেই সেটি হবে। ১৯৯৭ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে এই দিনেই হংকং শহরের নিয়ন্ত্রণ নেয় চীন। হংকংয়ে চীন-বিরোধী সব ধরনের আন্দোলন ঠেকানোর জন্য মূলত দেশটি এই আইন করছে।

গত বছর এমনই আরেকটি আইন নিয়ে চীনের আধা স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক রীতিমতো অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। ওই সময় বন্দী প্রত্যর্পণের সুযোগ রেখে চীন একটি আইন পাস করতে চাইলে প্রতিবাদে ফেটে পড়ে হংকং। কয়েক মাসের টানা আন্দোলনের মুখে পিছু হটে চীন। সেই আন্দোলন পরে গণতন্ত্রের দাবিতে রূপ নেয়।

এরপর মোটামুটি সব ঠিক থাকলেও হংকংকে নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা থেকে সরে আসেনি চীন। নতুন আইনকে হংকংয়ের স্থানীয়রা তাদের পায়ে ‘পরাধীনতার শিকল’ পরানোর সঙ্গে তুলনা করে আবার আন্দোলনে নেমেছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *