হেরে যাচ্ছে শিমলার ‘অসম প্রেমের গল্প’

বিনোদন: ‘ম্যাডাম ফুলি’ খ্যাত অভিনেত্রী শিমলা। তাকে নিয়ে রুবেল আনুশ নির্মাণ করেছেন ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ নামে একটি চলচ্চিত্র। বাস্তব জীবনের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে এটি। ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে এ সিনেমার শুটিং শুরু করেন নির্মাতা। এই সিনেমায় অসম প্রেমের গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। যার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন শিমলা ও ‘ঘেটুপুত্র’ সিনেমা খ্যাত অভিনেতা মামুন। শুরুটা বেশ ভালোই ছিল। কিন্তু কিছুদিন যেতেই বাধা হয়ে দাঁড়ায় কিছু অসাধু লোকের অনৈতিক লালসা ও অর্থ। রুবেল আনুশ বলেন, ‘আমি আসলে প্রযোজক মেইনটেইন করতে পারি না। প্রযোজকদের তেলাতে পারি না।

প্রথমে একজন প্রযোজক নিয়ে সিনেমাটির কাজ শুরু করি। কিছুদিন যেতেই প্রযোজক অনৈতিক কার্যক্রমের প্রস্তাব দেন। আমি এতে আপত্তি জানালে তিনি সিনেমা থেকে সরে দাঁড়ান। এর পরে আমি নিজেই সিনেমাটি প্রযোজনা শুরু করি। একপর্যায়ে আমার বাবার সম্পত্তি বিক্রি করে এর শুটিং করি। এতেও শেষ করতে পারিনি সিনেমাটির কাজ। এই সিনেমাকে কেন্দ্র করে আমার বাবা-মায়ের সঙ্গে সম্পর্ক নষ্ট হয়।

এক পার্যায়ে টাকা ধার করে সিনেমাটির বাকি অংশের কাজ শেষ করি।’ সিনেমাটির শুটিং শেষ হয়েছে প্রায় দুই বছর আগে। এখনো আলোর মুখ দেখেনি। সিনেমাটির সম্পাদনা ও মুক্তির জন্য এখন কিছু টাকা প্রয়োজন। এই অর্থের জোগান দিতে ব্যর্থ রুবেল।

এদিকে ঋণে জর্জরিত রুবেল এখন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে সেই ঋণ পরিশোধ করছেন। রুবেল আনুশ বলেন, ‘প্রযোজক ম্যানেজ করতে অনেক ঘুরেছি। কিন্তু পাওয়া যায় না। তাদের যে চাহিদা তা আমি দিতে পারছি না। এ ছাড়া অনেক দিন হওয়ায় কেউ এগিয়ে আসছেন না।

এখনো সম্পাদনার কাজ বাকি আছে। আমি একটি চাকরি করছি। সেখান থেকে যা আয় হয় তা দিয়ে ঋণ পরিশোধ করে যাচ্ছি।’ ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ সিনেমার নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ‘প্রেম কাহন’। শিমলা-মামুন ছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, রুমাই নোভিয়া, পুলক, বাপ্পী, লাবণী, সাদিয়া, আলিফ, মুসা, টুটুল চৌধুরী, আফরিন প্রমুখ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *