হেলিকপ্টারে শুটিংয়ে গেলেন পূর্ণিমা

বিনোদন: বেশ লম্বা একটা বিরতির পর সিনেমায় ফিরেছেন ‘হৃদয়ের কথা’খ্যাত চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। তিনি ফিরছেন তার বন্ধু নায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে জুটি বেঁধে। পরপর দুটি ছবিতে একসঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন পূর্ণিমা।

দুটি ছবিই নির্মাণ করছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল। একটি ছবির নাম ‘জ্যাম’, অন্যটি ‘গাঙচিল’। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের লেখা উপন্যাস ‘গাঙচিল’ থেকে নির্মিত হচ্ছে একই নামের সিনেমা। ছবিটির শুটিং শুরু হয়ে প্রথম ধাপের কাজ শেষ হয়েছে বেশ অনেকদিন আগেই। মাঝখানে কিছুটা বিরতি দিয়ে গত ১৭ নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় ধাপের শুটিং। এখন শুটিং হচ্ছে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে। এই পর্বে শুটিং হবে টানা ১৫ দিন। পরিচালকসহ গোটা ইউনিট সেখানে উপস্থিত।

বুধবার পূর্ণিমার শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও সড়কপথের অবরোধে বাধাগ্রস্ত হন তিনি। সড়কপথে টানা অবরোধের কারণে সময়মতো পৌঁছানোটা খুবই কঠিন হয়ে পরবে। তাই বাধ্য হয়েই শুটিং স্পটে সময়মত পৌঁছাতে আশ্রয় নিলেন উড়ালপথের। রওয়ানা দেন হেলিকপ্টারে করে। হেলিকপ্টারে করেই সেটে পৌঁছান ছবির নায়িকা পূর্ণিমা।

এ প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন, ‘ভোরবেলা সড়কপথে যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু বের হয়ে দেখি শ্রমিকরা নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারের দাবিতে রাস্তাঘাট অবরোধ করেছেন। যার কারণে বাধ্য হয়েই হেলিকপ্টারে আসতে হয়েছে।’ পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নিয়ামূল বলেন, ‘সড়কপথ অবরোধের কারণে জরুরিভিত্তিতে হেলিকপ্টারে করে নায়িকাকে আনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কারণ, পুরো দিনই নায়িকার অংশের শুটিং।

সকাল থেকে আমরা তার অপেক্ষায় বসে ছিলাম।’ নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট ইউনিয়নের গাঙচিল চরের নাম থেকেই ছবির নাম গাঙচিল রাখা হয়েছে। ছবিতে চরের মানুষের জীবনের গল্প উঠে এসেছে।

ছবিটিতে এনজিওর কর্মী মোহনার চরিত্রে অভিনয় করছেন পূর্ণিমা। সাংবাদিক সাগর চরিত্রে অভিনয় করছেন ফেরদৌস। আরও অভিনয় করছেন আসাদুজ্জমান নূর, তারিক আনাম খান, আনিসুর রহমান মিলন ও জয়রাজ প্রমুখ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *