১৮ বছর পর চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটি : নজরুল সভাপতি -আতিক সাধারণ সম্পাদক 

পিপ (পাবনা) : দীর্ঘ ১৮ বছর পর চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম কে সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক কে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়েছে।
তবে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো ও সাধারণ সম্পাদক প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মালেক কে নতুন কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।
শুক্রবার (১৮ জুন) রাতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যরিষ্টার বিপ্লব বড়–য়া স্বাক্ষরিত জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বরাবর দেয়া এক চিঠিতে এ নাম ঘোষণা করা হয়।
এই সাংগঠনিক নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। গত কয়েকদিন ধরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে আলোচনা চলছিল কে হচ্ছেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। অবশেষে মনোনীতদের নাম ঘোষণার মধ্য দিয়ে সেইসব আলোচনার অবসান হলো।
নিজের অনুভুতি জানাতে গিয়ে নবনির্বাচিত সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম বলেন, আমি যেন আমার উপরে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পারি সেজন্য সবার সহযোগিতা কামনা করছি। নবীন প্রবীণ সবার সমন্বয়ে একটি সুন্দর কমিটি উপহার দিয়ে দলকে গতিশলী করার চেষ্টা করবো। কেন্দ্র ও জেলার নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে এই কমিটি গঠন করা হবে।
নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক বলেন, ১৮ বছর পরে চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন হয়েছে। সেই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আমি সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও চাটমোহরবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আগামীতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে আওয়ামীলীগ ও সকল সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী এবং চাটমোহরের সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে আত্মনিয়োগ করবো। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার উপর যে আস্থা রেখেছেন আমি সেই আস্থার প্রতিদান দিতে সবসময় সচেষ্ট থাকবো। এ বিষয়ে এক প্রতিক্রয়ায় সদ্য বিদায়ী সভাপতি ও পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো বলেন, আমি  শেখ হাসিনার রাজনীতি করি। তিনি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমি মনে করি সেটাই সঠিক। কারো কোনো সন্দেহ নেই। নতুন যারা মনোনীত হয়েছেন তাদের প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। আগামীতে তারা এই দলটাকে আরো শক্তিশালী করবে বলে বিশ^াস করি।
সাখো বলেন, আওয়ামীলীগে ব্যক্তি কোনো বিষয় নয়। দলই মুল বিষয়। রাজনীতি তো একদিনের নয়। আমি মরে গেলে দল তো থাকবে। সবার প্রতি আহবান দলের সাথে থাকবেন। আপা যাকে ঘোষণা দিয়েছেন তারাই এখন আমাদের নেতা। এখানে অন্য কিছু চিন্তা করার বা ভাবার কিছু নেই। আপা মনে করছেন চাটমোহরে এই দুইজনকে দিলেই দল ভাল চলবে। তাই তিনি তাদের মনোনীত করেছেন। আমি যতদিন আছি ততদিন এদের নেতৃত্বেই  থাকবো।
উল্লেখ্য, ১৮ বছর পর গত ২৩ ফেব্রুয়ারি চাটমোহর বালুচর খেলার মাঠে চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকলেও সেদিন কমিটি ঘোষণা করা হয়নি।
তার আগে ২০০৩ সালের ৩০ জুলাই চাটমোহর সরকারি কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই সম্মেলনে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো সভাপতি ও আব্দুল মালেক সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। তারপর থেকে বিভিন্ন সময়ে উদ্যোগ নেয়া হলেও অজ্ঞাত কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন বারবার পিছিয়ে যায়।
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *