১৯১৮ সালে স্প্যানিশ ফ্লুর পর ২০২০-এ করোনাকে হারালেন তিনি

বিদেশ : ১৯১৮ সালে যখন স্প্যানিশ ফ্লু মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছিল তখন তার বয়স চার বছর। স্প্যানিশ ফ্লুতে মহামারি থেকে প্রাণে বেঁচে যাওয়া ওই ব্যক্তি ১০৬ বছর বয়সে আরেক মহামারি কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হন। তবে ভারতের রাজধানী দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে তিনি এখন সুস্থ। ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির এক অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, তিনি একা নন তার স্ত্রী, ছেলে ও পরিবারের আরও কয়েকজন সদস্যও করোনায় আক্রান্ত হয়ে সম্প্রতি দিল্লির রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন।

এরপর ৭০ বছর বয়সী ছেলের আগেই সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন তিনি। হাসপাতালটির একজন জ্যেষ্ঠ চিকিৎসক বলেন, ‘সম্ভবত, তিনি দিল্লিতে প্রথমদিকে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের মধ্যে একজন, যিনি ১৯১৮ সালে ভয়াবহ স্প্যানিশ ফ্লু মহামারির মধ্য দিয়ে গেছেন, যা কোভিড-১৯ মহামারির মতো গোটা বিশ্বকেও ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছি। ছেলের চেয়েও ওই বৃদ্ধ দ্রুত সুস্থ হয়েছেন।’ অপর এক জ্যেষ্ঠ চিকিৎসক জানান, ‘তিনি স্প্যানিশ ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন কিনা তা আমরা নিশ্চিত নই। এ ছাড়া তখনকার ওই মহামারি নিয়ে দিল্লি নথি সংগ্রহ করেছে কিনা তা যাচাই করারও সুযোগ নেই।

তবে ১০৬ বছর বয়সেও মহামারি আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি যে সাহস দেখিয়েছেন তা অনবদ্য।’ প্রসঙ্গত, ১০২ বছর আগে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া স্প্যানিশ ফ্লতে বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ মানুষ আক্রান্ত হয়েছিল। প্রায় চার কোটি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল ওই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হওয়ার পর। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ মহামারি ছিল এইচ১এন১ ভাইরাস থেকে সৃষ্ট স্প্যানিশ ফ্লু।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *