২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে চান পুতিন

বিদেশ: ক্ষমতায় থাকা আরো প্রলম্বিত করতে চান রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। তাই দেশটির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশগ্রহণের সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিচ্ছেন না তিনি। ‘রাশা-১’ নিউজ চ্যানেলকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, পার্লামেন্ট যদি সংবিধান সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন করে, তাহলে তিনি পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতেও পারেন। রুশ প্রেসিডেন্ট সম্প্রতি দেশের সংবিধান সংশোধনের খসড়ায় স্বাক্ষর করেছেন।

দেশটির সাংবিধানিক আদালত এই খসড়া অনুমোদন করলে তিনি ২০২৪ সালে অনুষ্ঠেয় পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। সে সঙ্গে ২০৩০ সালের নির্বাচনেও তার অংশগ্রহণের পথ সুগম হবে। সেক্ষেত্রে তিনি ২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে পারবেন। কোনো কোনো রুশ কর্মকর্তা অবশ্য এর মধ্যে পুতিনের একজন স্থলাভিষিক্ত খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন।

সে ব্যাপারে হুঁশিয়ার করে দিয়ে পুতিন বলেন, তারা যেন এসব বাদ দিয়ে নিজেদের কাজে মনোযোগী হন। রাশিয়ার বর্তমান সংবিধান অনুযায়ী এক ব্যক্তি একটানা তিনবার প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে থাকতে পারেন না। পুতিন ২০০০ সাল থেকে দুই মেয়াদে চার বছর করে মোট আট বছর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ছিলেন। এরপর সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা পালন করতে তিনি নিজের অনুগত রাজনীতিবিদ দিমিত্রি মেদভেদেভকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করে নিজে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন।

২০১২ সালে মেদভেদেভের মেয়াদ শেষ হলে পুতিন আবার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এবার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনের মেয়াদ চার বছরের জায়গায় ছয় বছর করা হয়। ২০২৪ সালে প্রেসিডেন্ট হিসেবে টানা দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন শেষ হবে পুতিনের।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *