৩২৯ দিন পর মাঠে, ২৯ সেকেন্ডে গোল

স্পোর্টস: স্বপ্নের মতো প্রত্যাবর্তন বুঝি একেই বলে। মারাত্মক এক চোটে মৌসুমে খেলার কোনো সম্ভাবনাই ছিল না মার্কো আসেনসিওর। অপ্রত্যাশিত বিরতির সময়ে সেরে উঠলেন। ৩২৯ দিন পর নামলেন মাঠে। বদলি হিসেবে নেমে প্রথম স্পর্শেই পেলেন জালের দেখা, সময় লাগল কেবল ২৯ সেকেন্ড! এমন ফেরায় স্বাভাবিকভাবেই দারুণ খুশি রিয়াল মাদ্রিদের ফরোয়ার্ড। আলফ্রেদো দি স্তেফানো স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার রাতে লা লিগার ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধের নজরকাড়া ফুটবলে ভালেন্সিয়াকে ৩-০ গোলে হারায় রিয়াল।

দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন আসেনসিও। অন্য দুই গোল আরেক ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমার। ৭৪তম মিনিটে ফেদে ভালভেরদেকে তুলে আসেনসিওকে নামান কোচ জিনেদিন জিদান। মাঠে নামার আধা মিনিট না যেতেই গোল। ভালেন্সিয়ার রক্ষণ একটি কর্নার ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে অরক্ষিত আসেনসিওকে বাড়ান ফেরলঁদ মঁদি। দুর্দান্ত কোনাকুনি ভলিতে ঠিকানা খুঁজে নেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। গত বছরের জুলাইয়ে আর্সেনালের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে বাঁ পায়ের হাঁটুতে চোট পেয়ে লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে পড়েন আসেনসিও।

২০১৯-২০ মৌসুমে আর মাঠে নামতে পারবেন না বলেই ধারণা করা হয়েছিল। তবে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বদলে গেছে পরিস্থিতি, যা শাপেবর হয়েছে আসেনসিওর জন্য। এই মৌসুমেই আবার মাঠে নেমে লিখলেন প্রত্যাবর্তনের দারুণ এক গল্প। রিয়াল মাদ্রিদনিজের প্রতিটি অভিষেকই রাঙিয়েছেন আসেনসিও। স্প্যানিশ সুপার কাপ, লা লিগা, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, কোপা দেল রে-সবগুলো প্রতিযোগিতাতেই নিজের প্রথম ম্যাচে গোল পেয়েছেন। ভালেন্সিয়া ম্যাচটি যদিও অভিষেক ছিল না।

তবে করোনাভাইরাস বিরতির পর দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে তার প্রথম ম্যাচ। গোল পেলেন সেখানেও। মৌসুমের শুরু থেকে গোলের জন্য সংগ্রাম করতে হয়েছে রিয়ালকে। আসেনসিওকে কোচ দেখেছেন সমস্যার সমাধান হিসেবে। ভালেন্সিয়া ম্যাচটাই যেমন। প্রথমার্ধে রিয়ালের নয় শটের আটটি ছিল লক্ষ্যে। এর কোনোটি জাল খুঁজে পায়নি। আসেনসিওর গোল করতে লাগল কেবল একটি শট। এই গোলে ম্যাচে রিয়ালের নিয়ন্ত্রণ আরও দৃঢ় হয়। এদেন আজার, বেনজেমা, আসেনসিও-এই তিন জনকে নিয়ে আক্রমণভাগ সাজানোর ছক এঁকেছিলেন কোচ।

কিন্তু আসেনসিওর মতো আজারও চোটের কারণে মাঠের বাইরে ছিলেন অনেকটা সময়। বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড ফেরার পর প্রথম দুই ম্যাচে আলো ছড়িয়েছেন। মৌসুমের শিরোপা লড়াই যখন জমে উঠেছে, গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে দুজনের ফেরা রিয়ালকে নিশ্চিতভাবে আরও উজ্জীবিত করে তুলবে। ফেরার ম্যাচে আসেনসিও শুধু গোল করেননি, করিয়েছেনও।

তার পাস থেকে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন বেনজেমা। ফেরার ম্যাচ রাঙাতে পেরে উচ্ছ্বসিত আসেনসিও মুভিস্টারকে জানান প্রতিক্রিয়া। “খুব করে ফিরতে চেয়েছিলাম, অনেক মাস কঠোর পরিশ্রম করেছি। আবার খেলতে পেরে, গোল করে ও জিততে পেরে আমি খুব খুশি।” “এর পেছনে আছে অনেক পরিশ্রম। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, আমি ভালো বোধ করছি। আমরা জিতেছি, বাকি সময়টার জন্য আমি প্রস্তুত।”

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *