মেসির গোল উদযাপন করলেন নেইমার

স্পোর্টস: বার্সেলোনার হয়ে গোলের অনেক রেকর্ডের মালিক লিওনেল মেসি পিএসজির জার্সিতে যেন নিজেকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না। সবার মতো তার গোলের অপেক্ষায় ছিলেন মাওরিসিও পচেত্তিনোও। ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে আর্জেন্টাইন তারকা গোলের দেখা পাওয়ায় পিএসজি কোচের চোখেমুখেও ছিল তাই বাড়তি উচ্ছ্বাস। পাক দি ফ্রাঁসে মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে সিটিতে ২-০ ব্যবধানে হারায় পিএসজি। শুরুতে ইদ্রিসা গেয়ির গোলে এগিয়ে যাওয়া দলটির ব্যবধান বাড়ান মেসি। বার্সেলোনার সঙ্গে ২১ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে অগাস্টে পিএসজিতে যোগ দেওয়া মেসি এতদিন পাচ্ছিলেন না গোলের দেখা। পরপর দুই ম্যাচে পোস্টে বল লাগার হতাশাও ছিল সঙ্গী। এরপর হাঁটুর চোটে বাইরে থাকেন দুই ম্যাচ। সিটির বিপক্ষে ফেরার ম্যাচেও অনেকটা সময় ছিলেন বিবর্ণ। অবশেষে আসে সেই বিশেষ ক্ষণ। নজরকাড়া গোলে জানান দেন, নতুন ঠিকানায় পুরনো রূপে আলো ছড়াতে তিনি প্রস্তুত। ৭৪তম মিনিটে নিজেকে মেলে ধরেন মেসি। সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডার এমেরিক লাপোর্তকে এড়িয়ে ডি-বক্সে এমবাপেকে পাস দেন তিনি। ফরাসি তারকা প্রথম ছোঁয়ায় ফ্লিকে ফেরত পাঠান। আর বল ধরেই বাঁ পায়ের দুর্দান্ত এক শটে স্কোরলাইন ২-০ করেন রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। মেসির গোলে গ্যালারির দর্শকরা মাতেন উল্লাসে। তাদের সঙ্গে উদযাপনে যোগ দেন পচেত্তিনোও। ম্যাচ শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পিএসজি কোচ জানান, তার এমন উদযাপনের কারণ। “সত্যি বলতে, আমি গোলের জন্য উল্লাস করি না। কিন্তু আমি এই গোলে (মেসির গোল) করেছি।” “এতদিন প্রতিপক্ষ হিসেবেই মেসির গোল দেখে অভ্যস্ত ছিলাম। কিন্তু এখন সে আমার দলে এবং এটা বিশেষ কিছু। উদযাপন করার মতো উপলক্ষ। রাতের জয়ে আমি খুব আনন্দিত।” প্রথম রাউন্ডে ক্লাব ব্রুজের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করা পিএসজি দুই ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে এখন শীর্ষে। সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ব্রুজ। ৩ পয়েন্ট পাওয়া সিটি আছে তিনে। গ্রুপের তলানিতে থাকা লাইপজিগের পয়েন্ট শূন্য।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *